• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৬ এপ্রিল, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ৬ এপ্রিল, ২০২২
Designed by Nagorikit.com

কুবিতে মেয়ে শিক্ষার্থীদের নামাজ আদায়ের জন্য নেই স্বতন্ত্র ব্যবস্থা

কুমিল্লা জার্নাল

নাজনীন নৈশি,কুবি প্রতিনিধি।

২০০৬ সালে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হলেও ছেলেদের নামাজ আদায়ের মতো ব্যবস্থা নেই মেয়েদের জন্য। ফলে নামাজ আদায়ের ক্ষেত্রে মেয়ে শিক্ষার্থীরা পড়ছেন বিড়ম্বনায়। ওয়াক্ত অনুযায়ী সালাত আদায় থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন তারা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ টি একাডেমিক ভবনের( বিজ্ঞান অনুষদ ,কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ,ব্যবসা ও বাণিজ্য অনুষদ এবং প্রকৌশল অনুষদ) মধ্যে বিজ্ঞান অনুষদে মেয়েদের নামাজের ব্যবস্থা থাকলেও সেটা অনেকটা না থাকার মতো।

এই বিষয়ে কুবির প্রত্নতত্ব বিভাগের চাঁদনী আক্তার বলেন, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ছেলে মেয়ে উভয়ের সংখ্যা প্রায় সমান।আর এখানে অধিকাংশ মুসলিম শিক্ষার্থী। সারাদিন ক্যাম্পাসে থেকে ক্লাস করার ফলে আমাদের নামাজ মিস যায়।ছেলেদের জন্য মসজিদের ব্যবস্থা থাকলেও কিন্তু মেয়েদের জন্য নেই পর্যাপ্ত নামাজের ব্যবস্থা,যদিও সাইন্স ফ্যাকাল্টিতে নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে কিন্তু পরিমাণ অনুযায়ী জায়গা সীমিত। বিভিন্ন ফ্যাকাল্টি থেকে নামাজের সময় ওখানে দৌড়ে গিয়ে নামাজ পড়া কষ্টসাধ্য হয়ে যায়। মেয়েদের জন্য নির্দিষ্ট একটা জায়গায় আলাদা করে নামাজের ব্যবস্থা হলে ভালো হয়। অথবা প্রত্যেকটা ফ্যাকাল্টিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে নামাজের জায়গার ব্যবস্থা করলে ভাল হয়।

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী ফারজানা বিনতে ওমর ফারুক বলেন, শিক্ষার্থীদের একটা বড় অংশ কুমিল্লা শহরে থাকে। নামাজ নিয়ে তাদের ভোগান্তিটাই বেশি। ক্লাস যদি সকাল -বিকালে হয় তাহলে পর পর দুই ওয়াক্ত সালাত মিস হয়ে যায়,আর শীতকালে ৩ ওয়াক্তই মিস হয়ে যায়। ক্লাস টাইমের ফাঁকে বিবিএ ফ্যাকাল্টির পাঁচ তলা থেকে নেমে বিজ্ঞান অনুষদে যাওয়া আবার পাঁচ তলা বেয়ে উঠাটা খুবই কষ্টের।

তিনি আরো বলেন, আগে ব্যবসা শিক্ষা অনুষদে একটা নামাজের জায়গা ছিল সেটাতেও তালা ঝুলে এখন। তার উপর বিজ্ঞান অনুষদের নামাজের জায়গাটি অনেক অপরিষ্কার, ওযু করার জায়গার ট্যাপ নষ্ট, নোংড়া। অর্থাৎ যে নামাজের জায়গাটা আছে সেটাও অপরিষ্কার।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহা: হাবিবুর রহমান বলেন,
মেয়েদের নামাজ ব্যবস্থার বিষয়টি আমাদের নজরে আছে। সাবেক উপাচার্য স্যারকে বিষয়টি জানানো হয়েছিল। যদিও নানান জটিলতায় কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। সম্প্রতি নতুন উপাচার্য স্যারের সঙ্গে আমি এ বিষয়ে কথা বলেছি। দ্রুত পরিবর্তন দেখা যাবে বলে আমি আশাবাদী।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির বলেন, মেয়েদের জন্য নামাজের আলাদা ব্যবস্থা নেই বিষয়টি খোঁজ নিয়ে নামাজে ব্যবস্থা করবো। যাতে মেয়েরা ক্যাম্পাসে নামাজ পড়তে পারে।

আরও পড়ুন

  • ক্যাম্পাস এর আরও খবর