• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২ মে, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ২ মে, ২০২২
Designed by Nagorikit.com

কুমিল্লার মেঘনায় সোহাগের উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে এলাকাবাসির মানববন্ধন

কুমিল্লা জার্নাল

 

হোসাইন মোহাম্মদ দিদার :

উপজেলার মানিকার চর ইউনিয়নের জলারপাড় নয়াগাঁও গ্রামের অটোরিকশা চালক সোহাগ(২৬) এর উপর এলাকার সন্ত্রাসী ইয়াবা আনিছের নেতৃত্ব্যের তার সাঙ্গপাঙ্গরা হত্যার উদ্দেশ্যে সোহাগকে বেধড়ক পিটিয়ে বাহাত ভেঙে খন্ড- বিখন্ড করে দিয়েছে।
জানা যায়, গত ২৫ এপ্রিল সোমবার ৫ টার সময় অটোচালকের বাড়ির সামনে এলাকার বখাটে ও মাদককারবারী আনিস ও তার সহযোগীরা অটোচালকের হর্ণ দেওয়াকে কেন্দ্র করে কথাকাটাকাটি হয়। এর প্রেক্ষিতে ঐদিন কিছুক্ষণপর সোহাগের উপর হামলা করে।
সন্ত্রাসীরা মারধর করে চলে যাওয়ার সময় পরিবারের সদস্যদেরকে প্রাণনাশের হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়।

সোমবার (২ মে,২০২২খ্রি.) ইউনিয়নের সুশীল সমাজের উদ্যোগে ইয়াবা আনিছের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে দুপুর ২টায় জলারপাড় নয়াগাঁও গ্রামে সড়কের উপর দাঁড়িয়ে প্রায় ১ হাজার লোকের উপস্থিতে এ মানববন্ধন হয়েছে ।
মানববন্ধন শেষে এলাকাবাসি আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করে শাস্তিরদাবিতে একটি মিছিল বের করে।

এলাকাবাসী জানান, আনিছ একজন দুষ্কৃতকারী। এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে দীর্ঘদিন যাবৎ।

স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার সিরাজউদ্দীন হাবিব জানান,” নিরীহ অটো রিকশা চালক সোহাগের উপর হামলার তীব্র নিন্দা জানাই। আমি মেঘনা থানা পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রতি সবিনয়ে অনুরোধ করছি,আপনারা দ্রুত এই ইয়াবা ব্যবসায়ী ও সোহাগের অত্যাচেষ্টাকারী ইয়াবা আনিছকে দ্রুত গ্রেফতার করে জনপদে শান্তিশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ রাখুন।”

ভুক্তভোগীর বাবা আব্দুল মতিন বলেন,”

আমার পোলাডারে মাইরা শেষ কইরা দিলো সন্ত্রাসী আনিছ। আমি প্রশাসনের উপযুক্ত বিচার চাই।
আমরা গরীব মানুষ। দিন আইন্না দিন খাই। কিস্তিতে টেহা আইন্না দুইডা অটো রিকশা কিনছি।
এই সন্ত্রাসীরা আমগো দুইটা গাড়িও ভাইঙ্গা শেষ কইরা দিছে। আমার পরিবারে ১০/১২ জন খাওয়ার লোক। ক্যামনে সংসার চালামু।
কী কইরা কিস্তি দিমু —বাবা?।
আমরা এখন নিরুপায়।

স্থানীয় বাসিন্দা ও স্কুল শিক্ষক জহির আহমেদ বলেন,”
জিসান খুব খারাপ প্রকৃতির লোক,
এলাকার নিরীহ মানুষজনের উপর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কিংবা অকারণেই হয়রানি, অত্যাচার করে থাকে। বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা তার বাড়ির সামনে দিয়ে আসার সময় ইভটিজিং করে থাকে। আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের অনুরোধ করছি তাকে দ্রুত গ্রেফতার করে শাস্তির আওতায় আনুন।”

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর বাবা আব্দুল মতিন বাদী হয়ে আনিছকে প্রধান আসামী করে ৪ জনের বিরুদ্ধে মেঘনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

 

.

আরও পড়ুন

  • কুমিল্লা এর আরও খবর