• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৪ মার্চ, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ১৪ মার্চ, ২০২২
Designed by Nagorikit.com

কুমিল্লায় আধিপত্য নিয়ে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া

কুমিল্লা জার্নাল

রুবেল মজুমদার
কুমিল্লা নগরীর বানিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত চকবাজার এলাকার গর্জনখোলা বিদ্যুৎ অফিস গলিতে রোববার বেলা ২টার দিকে মাদক ব্যবসায়েআধিপত্য বিস্তার ও চাঁদাবাজিকে কেন্দ্র করে ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়ার ঘটনায় পিস্তলসহ সহিদুর রহমান সজিব (৩২) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
আটক শহিদুর রহমান সজিব নগরীর মুরাদপুর মৌলভীপাড়া এলাকার ফরিদ উদ্দিনের ছেলে। সোমবার (১৪ মার্চ) সকালে চকবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কায়সার হামিদ এ কথা নিশ্চিত করে জানান, রোববার দিবাগত রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।অস্ত্রের মহড়ার এই ঘটনার একটি ভিডিও ফেসবুকে আপলোড করা হলে মুৃহুৃর্তেই তা ভাইরাল হয়ে যায়।
স্থানীয়রা জানান, আধিপত্য বিস্তার ও চাঁদাবাজিকে কেন্দ্র করে নগরীর গর্জনখোলাস্থ পশ্চিম পাড়া এলাকার মালু মিয়ার ছেলে বিএনপি কর্মী আবদুর রাজ্জাকের নেতৃত্ব স্থানীয় ওয়ার্ড যুবলীগের কর্মী রবিন আহমেদ ও জালাল উদ্দিনের লোকজনের উপর হামলা করা হয়। এ ঘটনার পরে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। পরে পোনে এক ঘণ্টাব্যাপী চলে এই ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা।
উভয় পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ১ মিনিট ৯ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, পিস্তল, রাম-দা, চাপাতি, রড, হাতুড়ি, লাঠি নিয়ে চকবাজার সড়কে ছুটাছুটি করছে। উভয় গ্রুপের সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও লাঠির আঘাতে কমপক্ষে ৫-৬ জন আহত হয়েছেন।
এ বিষয়ে গর্জনখোলার মৃত মাহে আলমের পুত্র রবিন বলেন, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করতে রোববার দুপুর ২টার দিকে আবদুর রাজ্জাক অর্ধশত সন্ত্রাসী নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। আর তার অনুসারী সজিবের হাতে ছিল বিদেশী পিস্তল । এছাড়া বাকি সকল সন্ত্রাসীদের হাতে ছিল দেশীয় রামদাসহ বিভিন্ন অস্ত্র। তারা আমিসহ ৫ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে। একজনকে কুপিয়েছে। এলাকার বেশ কয়েকটি দোকান কুপিয়ে মালামাল লুটপাট করেছে।
যুবলীগ কর্মী রবিন আরো বলেন, আবদুর রাজ্জাককে একজন পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী দাবি করে আরও বলেন, সে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করতে মরিয়া হয়ে পড়েছেন। সে চায় এলাকার সবাই তার কথায় চলবে। রাজ্জাক এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে এসব অপকর্ম করলেও কেউ তার বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস পায় না। কিন্তু আমি আর জালাল তার এসব কর্মকান্ডের বিরোধিতা করেছি বলে সে আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে পড়েছে। কিছুদিন আগেও রাজ্জাকের লোকজন তার উপর হামলা চালিয়ে পায়ে দা দিয়ে কুপিয়ে জখম করে বলে জানায় রবিন।
অভিযোগ অস্বীকার করে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আমি ঠিকাদারি ব্যবসা করি। ঘটনার সময় আমার হাতে কোনো অস্ত্রও ছিল না।আর মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত হওয়ার কথাও ঠিক না। আর আমার লোকজন কারও উপর হামলা করেনি।
চকবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কায়সার হামিদ বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। পরে ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজ আমাদের হাতে এলে সেটি পর্যালোচনা করে রাতেই একটি পিস্তলসহ সজিবকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করা হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহিদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় এখনো কোন পক্ষ মামলা করেনি। তবে অস্ত্রসহ গ্রেফতারকৃত সজিবের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে আজ সোমবার মামলা করেছে।
এ বিষয়ে কুমিল্লা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বলেন, ওই ঘটনায় প্রকাশ্যে যারা অস্ত্র প্রদর্শন করেছে তাদের সবাইকে শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

আরও পড়ুন

  • কুমিল্লা এর আরও খবর