• ঢাকা
  • শনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ২১ এপ্রিল, ২০২২
Designed by Nagorikit.com

চৌদ্দগ্রামে ন্যায্য মূল্যের চাল উত্তোলন কেন্দ্র করে একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে জখম; আটক ৪

কুমিল্লা জার্নাল

চৌদ্দগ্রামে ন্যায্য মূল্যের চাল উত্তোলনকে কেন্দ্র করে একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে জখম; আটক ৪।

 

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড পূর্ব কাশিপুর গ্রামে সরকারি ন্যায্য মূল্যের চাল উত্তোলনকে কেন্দ্র করে উজিরপুর ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা আসনের ইউপি সদস্য হাসিনা বেগমের নেতৃত্বে একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে জখম। এদের মধ্যে হারুন মিয়া নামের একজনের অবস্থা আশংকাজনক। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় পুলিশ ইউপি সদস্য হাসিনা বেগম সহ একই পরিবারের ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

 

বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চৌদ্দগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ শুভ রঞ্জন চাকমা।

 

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়নের পূর্ব কাশিপুর গ্রামে।

 

জানা যায়, গত মঙ্গলবার স্থানীয় ইউপি মহিলা সদস্য হাসিনা বেগম ভিকটিম হারুন মিয়ার পরিবারের একটি সরকারি ন্যায্য মূল্য কার্ডের ৩০ কেজি চাল উত্তোলন করে আত্মসাৎ করে আসছেন। চাল আত্মসাতের ঘটনাটি হারুন মিয়া জানতে পারলে তা জিজ্ঞেস করতে গেলে দুই পরিবারের মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। এরই সূত্র ধরে একই দিন ইফতারের পর সন্ধ্যায় হাসিনা বেগমের চাচাতো ভাই মানিক ধারালো চাপাতি দিয়ে হারুন মিয়াকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ফেলে রেখে যায়। তার চিৎকার শুনে ছেলে আতাউল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম, মেয়ে মিনা আক্তার, কাজের লোক খোরশেদ আলম এগিয়ে এলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে হাসিনা বেগম গং। পরে আশেপাশের লোকজন আহতদের উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। তাদের মধ্যে হারুন মিয়ার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

 

এ ঘটনায় হারুন মিয়ার স্ত্রী আলেয়া বেগম বাদী হয়ে ইউপি মহিলা সদস্য হাসিনা বেগম সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

 

পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইউপি মহিলা সদস্য হাসিনা বেগম, তার স্বামী হিরন মিয়া, বাবা আবদুল হাকিম ও মা মরিয়ম বেগমকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আরিফ হোসেন বলেন, ইউপি মহিলা সদস্যের নেতৃত্বে একই পরিবারের ৫ জনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে হারুন মিয়া নামে এক ভিকটিমের অবস্থা আশংকাজনক। এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

 

অফিসার ইনচার্জ শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন, মাত্র ৩০ কেজি ন্যায্য মূল্যের চাল আত্মসাতের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইউপি মহিলা সদস্য হাসিনা বেগমের নেতৃত্বে হামলার ঘটনা ঘটে। আমরা ইতোমধ্যে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছি। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন

  • কুমিল্লা এর আরও খবর