• ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর, ২০২১
সর্বশেষ আপডেট : ১২ ডিসেম্বর, ২০২১
Designed by Nagorikit.com

জলাবদ্ধতায় বিপদে কৃষক

কুমিল্লা জার্নাল

রাজনৈতিক প্রভাবের কাছে সাধারণ মানুষ শুধু জিম্মিই হয়ে পড়ে না, অনেক সময় সর্বস্বান্তও হয়। ভোলা সদর উপজেলার একটি বিলে জলাবদ্ধতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে অসহায় হয়ে পড়েছে মানুষ। কয়েক হাজার কৃষক অর্ধযুগ ধরে সেখানে কোনো ফসল উৎপাদন করতে পারছেন না। অনাবাদি পড়ে আছে ৬০০ একর জমি। মূলত বিলের পানিনিষ্কাশনের জন্য সাতটি কালভার্টের মুখ বন্ধ হয়ে গেছে। স্থানীয় এক প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতার এক আত্মীয় কালভার্টগুলো দখল করে রেখেছেন। ফলে জলাবদ্ধতা সমস্যায় আটকে পড়েছে সেখানকার মানুষের জীবন ও জীবিকা। একটি সভ্য রাষ্ট্রে কোনোভাবেই বছরের পর বছর ধরে মানুষের এমন দুর্গতি ও দুর্ভোগ মেনে নেওয়া যায় না।

উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নে সদুরচর বিলে ১২ মাসই পানি জমে থাকায় বিপদে পড়েছেন কৃষকেরা। কালভার্ট দখলমুক্ত করতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ কৃষকেরা উদ্যোগ নিলে উল্টো রাজনৈতিক প্রভাব ও পুলিশি ভয় দেখিয়ে কোণঠাসা করে রেখেছেন দখলদার ব্যক্তি। ছয় বছর ধরে প্রশাসনের কাছে বারবার ধরনা দিলেও কোনো ফল মেলেনি। অন্যদিকে সদর উপজেলা কৃষি বিভাগ বিলের পানিনিষ্কাশনের জন্য এক বছর আগে একটি নালা নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। কিন্তু আজও সেই উদ্যোগ বাস্তবায়ন করা হয়নি।

 

সদুরচর বিলের জমিগুলো তিন ফসলি। ৬০০ একরে ধান আবাদ করলে বছরে সাড়ে সাত কোটি টাকার ধান উৎপাদন সম্ভব। তবে সবজি বা অন্য ফসল আবাদ করলে বছরে ২৭ কোটি টাকার ফসল ফলানো সম্ভব। এখন সেখানে কৃষকেরা আবাদ তো করতেই পারছেন না, নিজের জমি থাকা সত্ত্বেও অন্য এলাকার দিনমজুরে পরিণত হয়ে পড়েছেন। সেখানকার বর্গাচাষিরাও খেয়ে না খেয়ে আছেন বলতে গেলে। উপজেলা প্রকৌশল কার্যালয় জানিয়েছে, সদুরচর বিলের পানিনিষ্কাশনের জন্য ড্রেন নির্মাণ করতে দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। এখনো দরপত্র মূল্যায়ন হয়নি। দ্রুত পাকা নালার কাজ শুরু হবে। তবে প্রথম আলোর প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কাজের অগ্রগতি খুবই ধীর। এখনো দরপত্রই মূল্যায়ন হয়নি। এ ছাড়া পুরো প্রকল্পের জন্য মাত্র ২০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, যা দিয়ে এত বড় জমির জলাবদ্ধতা দূর করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

এ জলাবদ্ধতা ও কৃষকদের এমন দুর্দশার দায় নিতে হবে প্রশাসনকেই। কেন তারা কালভার্টগুলো এত বছরেও দখলমুক্ত করতে পারেনি? রাজনৈতিক নেতার আত্মীয়ের দখলবাজির কাছে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের এমন নতিস্বীকার লজ্জাজনক। বিলটির জলাবদ্ধতা সমস্যা দ্রুত নিরসন হোক।

আরও পড়ুন