• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৮ মার্চ, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ১৮ মার্চ, ২০২৩
Designed by Nagorikit.com

তিতাসে নিজস্ব নিয়মে চলছে সাব রেজিষ্ট্রার অফিস, জনগণের ভোগান্তি

কুমিল্লা জার্নাল

 

মোঃ জুয়েল রানা, তিতাস প্রতিনিধি:
সরকার যেখানে সাধারণ মানুষের সেবাবৃদ্ধি ও যথাযথ সেবা প্রদানে সক্রিয় তখনই কুমিল্লার তিতাস উপজেলায় নিজস্ব নিয়মে চলছে সাব রেজিষ্ট্রার অফিস। প্রতি সপ্তাহে ৫ কর্মদিবসের মধ্যে জমি রেজিস্ট্রেশনের কাজ বন্ধ থাকে ২দিন। এতে মানুষের ভোগান্তির চরম আকার ধারণ করছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০০৪ সালে তিতাস উপজেলা প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর ২০১৩ সালের পহেলা জুলাই থেকে তিতাসে সাব রেজিষ্ট্রার অফিসের কার্যক্রম শুরু হয়। শুরু থেকে উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন একটি ভবনে এর কার্যক্রম চলে। ইতিমধ্যে ১০জন সাব রেজিষ্ট্রারের দায়িত্ব পালন করে গেছেন। বর্তমানে দায়িত্বপ্রাপ্ত মোহাম্মদ মোমেন মিয়া ২০২০ সালের ২৫ অক্টোবর উক্ত কর্মস্থলে যোগদান করেন। যোগদানের পর থেকে তার বিরুদ্ধে নানাহ অনিয়মের অভিযোগ উঠে। এমনকি দলিলের নকল ও মূলকপি গ্রহিতা নিতে চাইলে বাধ্যতামূলক (রশিদবিহীন) দিতে হয় ১ থেকে দেড় হাজার টাকা। বিশেষ করে প্রতি সপ্তাহে তিনি রবিবার ও বৃহস্পতিবার কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকেন। তবে পূর্বের কোন সাব রেজিষ্ট্রার এ নিয়মে অফিস পরিচালনা করেননি।

এসব বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে সাধারণ মানুষ অভিযোগ করলেও তাদের অধিন্যস্ত না হওয়ায় তারা ব্যবস্থা নিতে পারছেন না।

বৃহস্পতিবার উপজেলার সাব রেজিষ্ট্র্রার অফিসে দলিল রেজিস্ট্রি কাজে আসা জয়নাল আবেদীন জানান, বুধবার দলিল করার কথা ছিল। হঠাৎ পারিবারিক সমস্যার কারণে কাজটি করতে পারিনি। আজ অফিসে এসে শুনতে পারলাম আগামী সোমাবার ছাড়া দলিল রেজিষ্ট্রি করা যাবে না।

উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি হুমায়ুন কবির কাজল বলেন, আমরা স্যারকে সপ্তাহের ৫দিনের মধ্যে দায়িত্ব পালন করতে অনুরোধ করেছি। তবে আমরা উনার অধিন্যস্ত। বেশি পীড়াপীড়ি করতে পারি না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এটিএম মোর্শেদ বলেন, উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রার অফিস আমার অধিন্যস্ত না হওয়ায় আমি কোন ব্যবস্থা নিতে পারছি না।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন সরকার বলেন, সাব রেজিষ্ট্রারের বিষয়ে অনেকেই মৌখিক অভিযোগ করেন। তবে বিষয়টি আমি জেলা উন্নয়ন সমন্বয়ন সভা বা আইনশৃঙ্খলা সভায় উত্থাপন করবো।

এবিষয়ে উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রার মোহাম্মদ মোমেন মিয়া বলেন, দলিল লেখক সমিতির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমি সপ্তাহে ৩দিন দায়িত্বপালন করছি। এ বিষয়ে আপনি দলিল লেখক সমিতির সাথে কথা বলতে পারেন।
কুমিল্লা জেলা রেজিষ্ট্রার মো. আনোয়ারুল হক চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি মুঠোফোনে জানান, সাব রেজিষ্ট্রার সপ্তাহে ৫ দিনই দায়িত্ব পালন করতে হবে। তবে আমি যতদূর জানি দলিল লেখক সমিতির নেতাদের আবদারের উপর ভিত্তি করে ৩দিন দায়িত্ব পালন করছেন। তারপরও বলবো এটা ঠিক না।

কুজা/জাহিদ

আরও পড়ুন

  • কুমিল্লা এর আরও খবর