• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ১৩ এপ্রিল, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ১৩ এপ্রিল, ২০২২
Designed by Nagorikit.com

মারধরের ঘটনায় বিচার চেয়ে প্রক্টরের নিকট লিখিত অভিযোগ কুবি শিক্ষার্থীর

কুমিল্লা জার্নাল

নাজনীন নৈশি
কুবি প্রতিনিধি:

ক্যাম্পাসে মারধরের ঘটনায় বিচার চেয়ে প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ আল কাউছার। প্রক্টর অফিস সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (১২ ই এপ্রিল) দুপুর ১২ টার দিকে তিনি এই অভিযোগ দাখিল করেন।

লিখিত অভিযোগপত্রে প্রত্নতত্ত্ব ১৪ব্যাচের শিক্ষার্থী কাউছার বলেন, গত ১১ এপ্রিল আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে ইফতার শেষে অবস্থান নিলে আইসিটি ১৪ব্যাচের শিক্ষার্থী রবিন এসে সহপাঠীদের জিজ্ঞাসা করে কাউছার কে? তখন আমি সাড়া দিলে দরকারি কিছু কথা আছে বলে গেইটের ভিতরে নিয়ে যায়। তখন সে আমাকে বলে ‘ডিপার্টমেন্টে তুই নাকি পাকনামি করিস? আমাদের কাছে ইনফরমেশন আছে।’ এই বলে রবিন এবং তার দুই বন্ধু আলভীর ভূইয়া ও শাহিন মিয়া আমাকে মারধর করে। তারপর তারা পরবর্তীতে সাবধান থাকতে বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়।

এছাড়াও অভিযোগপত্রে তিনি এই ঘটনায় মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ার পাশাপাশি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে উল্লেখ করে দোষীদের শাস্তি দাবি করেছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আবদুল্লাহ আল কাউসার বলেন, আমাকে কেন, কী কারণে মারা হলো তা জানার জন্য এবং অন্যায়ভাবে আমাকে মারার বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগপত্র দিয়েছি।

লিখিত অভিযোগের বিষয়ে প্রক্টর কাজী ওমর সিদ্দিকী বলেন, আজকে আমরা প্রক্টিরিয়াল বডি বসেছিলাম। সেখানে অভিযোগকারীকে ডাকা হয়েছিল এবং আমরা তার কথা শুনেছি। সে যাদের নাম বলেছে তাদেরকে আগামী দিন (যেদিন ক্যাম্পাস খোলা থাকবে ) ডাকবো।

উল্লেখ্য, ১৪ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী রবিন, আলভীর ও শাহীন গত ১১ এপ্রিল সন্ধ্যায় কাউছারকে মারধর করে। বিষয়টি কাউছার তার বন্ধু গালিব কে জানালে গালিব সেখানে ১৩ তম ব্যাচের কয়েকজন শিক্ষার্থী নিয়ে আসে এবং তর্কাতর্কির সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বঙ্গবন্ধু হল ও শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী সেখানে হাজির হলে, হল শাখা ছাত্রলীগের মধ্যেও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

আরও পড়ুন

  • কুমিল্লা এর আরও খবর