• ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২৯ মে, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ২৯ মে, ২০২২
Designed by Nagorikit.com

স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচারণা: কুসিকের কনিষ্ঠ প্রার্থী সাক্কু

কুমিল্লা জার্নাল

হাবিবুর রহমান মুন্না।।

আগামী ১৫ জুন কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের তৃতীয় বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নির্বাচনে মেয়র এবং কাউন্সিলর প্রার্থীরা ব্যস্ত প্রচারণায়।

নানারকম নির্বাচনী গান আর মাইকিংয়ে চলছে প্রচারণা। প্রার্থীরাও দিচ্ছেন নানারকম প্রতিশ্রুতি। তবে ব্যতিক্রমী প্রচারণার কারণে ইতোমধ্যে আলোচনায় এসেছেন কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন ( কুসিক) নির্বাচনে দুইবারের সাবেক সদ্য বিদায়ী মেয়র মোঃ মনিরুল হক সাক্কু টেবিল ঘড়ি‌ প্রতিক নিয়ে।

রবিবার (২৯মে) কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু নগরীর কান্দির পাড় খন্দকার হক টাওয়ার মার্কেটের দোকান ও ক্রেতাদের সাথে হাত  মিলান এবং ভোট চান তার জন্য। সাত্তার খান কমপ্লেক্স মার্কেট,সমবায় মার্কেট, নিউ মার্কেট, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ রোড,একে ফজলুল হক রোড, টাউনহলের সামনের রাস্তা,জিলা স্কুল রোড মনেহরপুর ও বিভিন্ন রাস্তার অলিগলিতে হাতে হ্যান্ডমাইক আর লিফলেট নিয়ে জনসংযোগ চালাচ্ছেন কুসিক মেয়র প্রার্থী সাক্কু। রাস্তার মোড়ে মোড়ে সমবেত জনতার দৃষ্টি আকর্ষণ করে সালাম দিয়ে নিজের পরিচয় দিচ্ছেন এবং তার মার্কায় (টেবিল ঘড়ি) ভোট চাচ্ছেন। নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়নে নিজের প্রতিশ্রুতির কথা জানিয়ে ভোটারদের হাতে তুলে দিচ্ছেন নিজের লিফলেট।

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের সর্বকনিষ্ঠ প্রার্থী সাক্কুর এমন প্রচারণাকে ইতিবাচক হিসেবেই নিচ্ছেন এলাকার ভোটাররা। কোনো দলীয় টিকিট ছাড়াই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে মনিরুল হক সাক্কু এমন প্রচারণায় বাহবা দিচ্ছেন অনেকেই। তারুণ্য, সাহস ও জনগণের প্রতি তার প্রতিশ্রুতিতে অনেকেই মুগ্ধ হচ্ছেন।

সিটি কর্পোরেশনের সাধারণ ভোটাররা বলছেন, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রচারণার ধরনও পাল্টে যাচ্ছে। সাক্কু সংক্ষিপ্ত কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্যের মাধ্যমে সহজেই যেকোনো জায়গায় সবার মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারছেন।

জুলফিকার নামের এক বয়োবৃদ্ধ সিটি কর্পোরেশনের ভোটার বলেন, ‘সাক্কুভাইটা মাইকেতে  ভালো সাড়া ফেলাচ্ছে! ভালো দম আছে ওনার। কথাগুলাও সুন্দর লাগছে। সিটি কর্পোরেশনে ওনার মত  মেয়র লাগিবে।’

এমন প্রচারণার বিষয়ে মনিরুল হক সাক্কু বলেন, ‘আসলে সামনে সময় কম। আমি চাচ্ছি কম সময়ে বেশি মানুষের কাছে ‘পরিবর্তনের ডাক’ পৌঁছাতে। আমিও ভেবেছিলাম লোকে কী ভাববে কিন্তু ভোটাররা বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই নিয়েছেন। তাই কর্মী বাহিনীর পাশাপাশি নিজেই মাইক আর লিফলেট হাতে ভোটারদের কাছে যাচ্ছি।’

এসময় সাংবাদিকরা এক প্রশ্ন‌ ছুড়েন তাঁর উপর বলেন, অনেক প্রার্থী কর্মী সমর্থক দিয়ে মিছিল করান, প্রচার করান কিন্তু আপনি কেন অল্প কয়েকজন নিয়ে নিজে হাজির হয়ে জনসংযোগ করছেন এ প্রশ্নের  জবাবে সাবেক মেয়র সাক্কু বলেন, আমি জনগণের লোক তাই জনগনের কাছে যেয়ে ভোট চাই। আমি যখন মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলাম তখনও ভিক্ষুক থেকে শুরু করে সব দলের লোক আমার কাছে এসেছে। আমার কাছে কোন ভেদাভেদ নেই তাই সবার সাথে আমি মিশতে পারি।

সামনের নির্বাচনে কোনো কারচুপি না হলে এবারো  জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

উল্লেখ্য, আগামী ১৫ জুন কুসিক নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ সিটিতে ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ২৯ হাজার ৯২০ জন। শুক্রবার (২৭ মে) আপিল নিষ্পত্তি শেষ ২৭ মে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়।

নির্বাচনে মেয়র পদে ৫ জন,কাউন্সিল পদে লড়বেন ১০৬ জন, সংরক্ষিত পদে লড়ছেন ৩৮ জন। এছাড়া বিকেল ৩ থেকে প্রার্থীদের প্রচারণা শুরু করেছেন।

কুমিল্লা জার্নাল.কম/মুন্না

আরও পড়ুন

  • কুমিল্লা এর আরও খবর