• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
সর্বশেষ আপডেট : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
Designed by Nagorikit.com

হেরে গিয়ে ক্রীড়া সংস্থার লোকজনকে মারধর করলো মোহামেডানের খেলোয়াড়রা!

কুমিল্লা জার্নাল

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ ফুটবল (বিপিএল) এর আজকের খেলায় জয় পেয়েছে বসুন্ধরা কিংস।

কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে নির্ধারিত সময়ের গোলহীন খেলা শেষে অতিরিক্ত সময়ের ৫ মিনিটের গড়ায়। ঠিক শেষ মিনিটে গোল পেয়ে মোহামেডানের বিরুদ্ধে জয় পায় লাল জার্সিরা।
তবে শেষ মুহুর্তের গোলে অসন্তোষ মোহামেডানের খেলোয়াড় ও স্টাফরা রেফারি ও কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার লোকজনের উপর চড়াও হয়। তারা রেফারির ভূমিকাকে পক্ষপাত বলে অভিযোগ করেন। যদিও এ বিষয়ে মোহামেডানের কোচ ও খেলোয়াড়দের আনুষ্ঠানিক কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ সময় উত্তোজিত খেলোয়াড় ও সাইড বেঞ্চে বসে থাকা অফিসিয়ালরা মিলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান ফারুক রোমেন, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক বাদল খন্দকার , নগরীর ১১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাবিবুর আল আমিন সাদি ও ফুটবল এসোসিয়েশনের সদস্য দেলোয়ার হোসেন জাকির ও জাহানকে লাঞ্চিত করে।
এ সময় মাঠে ব্যাপক গন্ডগোল হয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ত্রিনাথ সাহা তন্ময় বলেন, মাঠে গন্ডগোল হচ্ছে এমন খবরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। পুলিশ পাহারায় দু’দলের খেলোয়াড় অফিসিয়ালসহ সবাইকে বের করে আনি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এখন পর্যন্ত কেউ কোন বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেন নাই।

কুমিল্লা স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে আসা অন্তত দশ জন দর্শক বলেন, নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা শেষ হয়। রেফারি অতিরিক্ত ৫ মিনিট দেয়। ৪ মিনিটে বসুন্ধরার আক্রমন ভাগের একটি হেডে মোহামেডানের জালে ঢুকে বল। কাঙ্খিত গোল পেয়ে উচ্ছাসে মেতে উঠে বসুন্ধরা। অন্যদিকে এই গোল নিয়ে রেফারির সাথে বাকবিতন্ডায় জড়ায় মোহামেডানের খেলোয়াড়রা। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এসে আরোও ১ মিনিট খেলা হয়। শেষ বাঁশি বাজার সাথে সাথে মোহামেডানের একজন স্টাফ মাঠে প্রবেশ করে বোতল ছুড়ে মারে রেফারির দিকে। রেফারিকে ধাক্কা মারে।

এ সময় কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার লোকজন এগিয়ে গেলে মোহামেডানের খেলোয়াড় ও ক্রীড়া সংস্থার লোকজনের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।
দর্শকরা আরো জানান, খেলোয়ারদের মধ্যে থেকে কয়েকজন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান ফারুক রোমেন, বাদল সরকার, জাহান ও নগরীর ১১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাবিবুর আল আমিন সাদি ও দেলোয়ার হোসেন জাকিরের উপর চড়াও হয়।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান ফারুক রোমেন বলেন, মোহামেডানের একজন স্টাফ রেফারির উপর চড়াও হয়। তাকে কিল-ঘুষি মারে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে তারা আমাদের উপরও চড়াও হয়। বিষয়টি আমরা বাফুফেকে জানিয়েছি।

 

আর.আই/

আরও পড়ুন