• ঢাকা
  • রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর, ২০২২
সর্বশেষ আপডেট : ৯ নভেম্বর, ২০২২
Designed by Nagorikit.com

কমিটি বিলুপ্তির ১ বছর পার হলেও বিলম্বিত হচ্ছে কুমিল্লা উত্তর যুবলীগের নতুন কমিটি ঘোষণায়

কুমিল্লা জার্নাল
কমিটি বিলুপ্তির ১ বছর পার হলেও বিলম্বিত হচ্ছে কুমিল্লা উত্তর যুবলীগের নতুন কমিটি ঘোষণায়
কমিটি বিলুপ্তির ১ বছর পার হলেও বিলম্বিত হচ্ছে কুমিল্লা উত্তর যুবলীগের নতুন কমিটি ঘোষণায়

স্টাফ রিপোর্টার||

কুমিল্লা উত্তর জেলা যুবলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণার ১৩ মাস পার হলেও নতুন কমিটি এখনো ঘোষিত হয়নি। বার বার বিলম্বিত হচ্ছে কমিটি ঘোষণায় ।কমিটি ঘোষণায় বিলম্ব হওয়ায় সাংগঠনিক কার্যক্রমেও স্থবিরতা দেখা দিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিভিন্ন সূত্রমতে, কুমিল্লা উত্তর জেলা যুবলীগের কমিটিতে ত্যাগি ও মাঠের পরিশ্রমি নেতাকর্মীদের বাদ দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে । তাদেরকে বাদ দেওয়ার জন্য নানা দিক দিয়ে মিথ্যে তথ্য সরবরাহ করে তদবির অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া মাদক ব্যবসায়ি, নিস্ক্রিয় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা, ব্যবসায়ি ও প্রাইভেট চাকুরীজীবিদের জন্য তদবির করছে উত্তরের বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদ ও জনপ্রতিনিধি। এদিকে পদ হারানোর ভয়ে শংকিত মাঠ পর্যায়ের নিবেদিত নেতাকর্মীরা। বিগত বছরের ২ অক্টোবর কুমিল্লা উত্তর জেলা শাখা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ। যুবলীগের নতুন কমিটিতে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক কিংবা আহ্বায়ক-যুগ্ম আহ্বায়ক পদে স্থান পেতে জোর লবিং করছে আগ্রহী প্রার্থীরা। সভাপতি পদে বেশ আলোচনায় রয়েছেন যুবলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ সারওয়ার হোসেন বাবু । এছাড়া এই পদে দাউদকান্দি উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা প্রকৌশলী গাজী রাসেল এর নাম আলোচনায় রয়েছে। তবে এই পদে সারওয়ার হোসেন বাবুর নামই জোরেসোরে আলোচনায় রয়েছে। কারণ সারওয়ার বাবু বিগত ১৫ বছরে জেলাজুড়ে নানা ইতিবাচক কর্মকান্ডে সক্রিয় ছিলেন। বিশেষ করে করোনাকালে তার সক্রিয় কর্মকান্ড ছিল প্রশংসার দাবিদার। এই পদে আরেক প্রার্থী আনোয়ার । সে দাউদকান্দি উপজেলা যুবলীগের দায়িত্ব পালন করছে। এছাড়া প্রকৌশলী গাজী রাসেলের বাড়ি দেবিদ্বার। তিনি ঢাকায় থাকেন বেশিরভাগ সময়। এলাকায় খুবই কম দেখা যায়। সেই প্রেক্ষাপটে সারওয়ার হোসেন বাবুর সাথে এই পদে লড়াইয়ে তেমন কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আসতে পারবে না বলে আশাবাদ তৃণমূল নেতৃবৃন্দের। জানা যায়, সাংগাঠনিক কার্যক্রমে তিনি বেশ সক্রিয় ছিলেন। বিশেষ করে করোনা মহামারিতে হ্যালো যুবলীগ গঠন করে প্রায় ১০ হাজার অসহায় ও কর্মহীন মানুষের ঘরে খাবার পৌছে দিয়েছেন। এছাড়া করোনা সুরক্ষাসামগ্রী নিয়মিত সরবরাহ করেছেন। দিয়েছেন অক্সিজেন সেবাও। সব মিলিয়ে করোনা সংকটময় সময়ে মানুষের পাশেই ছিলেন এই যুবলীগ নেতা। এছাড়া উত্তর জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কয়েক হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনী সম্বলিত হাজার হাজার বই বিতরণ করেছেন সারওয়ার হোসেন বাবু। সিলেটে সম্প্রতি বণ্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের জন্য ২ ট্রাক খাদ্য নিয়ে সেখানে বিতরণ করেছেন সারওয়ার হোসেন বাবু। তাছাড়া কেন্দ্রীয় সকল সাংগঠনিক কর্মকান্ডে সারওয়ার হোসেন বাবুর সক্রিয়তা উল্লেখ করার মত। সারওয়ার হোসেন বাবু জানান, যদি দায়িত্ব পাই তাহলে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালি, স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ অনুযায়ী যুবলীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের নির্দেশে সকল কার্যক্রম পরিচালনা করবো। এছাড়া বিভিন্ন পদে আলোচনায় রয়েছেন দেবিদ্বার উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক শামীম, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য আবুল কালাম আজাদ, এড. মো: এনামুল হাছান খান (রিপন),কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্র্রলীগের সভাপতি আবু কাউছার অনিক, হোমনা কলেজের সাবেক ভিপি লিটন, বাঙ্গরা থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ নজরুল, দেবিদ্বার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের ভাই মামুনুর রশীদ প্রমুখ। কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্র্রলীগের সাবেক সভাপতি আবু কাউছার অনিক বলেন, সাবেক ছাত্রনেতাদের সমন্বয়ে যুবলীগ গঠন করলে সাংগাঠনিক কার্যক্রম বেগবান হবে। আশা করি সততা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করা নেতাকর্মীরাই যুবলীগে স্থান পাবে। উল্লেখ্য যে, ২০১৫ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর মোঃ বাহাউদ্দিন বাহারকে আহ্বায়ক ও মোঃ সারওয়ার হোসেন বাবুকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে কুমিল্লা (উত্তর) জেলা যুবলীগের ২১ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় যুবলীগ।

আরও পড়ুন

  • বৃহত্তর কুমিল্লা এর আরও খবর