• ঢাকা
  • শনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
প্রকাশিত: ২০ ডিসেম্বর, ২০২১
সর্বশেষ আপডেট : ২০ ডিসেম্বর, ২০২১
Designed by Nagorikit.com

কুমিল্লায় আগামী তিনদিন শীত ও কুয়াশার আধিক্য থাকতে পারে

কুমিল্লা জার্নাল

রুবেল মজুমদার ।।
সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লায়ও জেঁকে বসেছে শীত। শীতের তীব্রতার পাশাপাশি বেড়েছে ঘন কুয়াশা। সপ্তাহজুড়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহের শুরুতে বিকাল থেকেই কুয়াশার চাঁদরে ঢেকে যায় সড়ক, মহাসড়ক, গ্রামীণ জনপদ থেকে শুরু করে পুরো জেলা।
গভীর রাতে ঘন কুয়াশা যেন মৃদু বৃষ্টির ন্যায় ঠেকে। কুয়াশার তীব্রতায় ঝাপসা হয়ে পরে পথ-ঘাট। সোমবার ভোর গড়িয়ে সকাল ১২টা বাজলেও কুয়াশা কাটে না। ঘন কুয়াশায় বিপদজনক হয়ে পড়েছে দেশের লাইফলাইন খ্যাত ব্যস্ততম ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক।
রাতের ন্যায় সকালেও হেড লাইট জ্বালিয়ে ধীর গতিতে চলাচল করছে যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী ট্রাকসহ সব ধরনের যানবাহন। সকাল ৯টার পর থেকে স্বাভাবিক গতিতে যানচলাচল শুরু হয়। সন্ধ্যার পর থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত বেশ ঝুঁকি নিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম যাতায়াত করছে সকল যানবাহন। এতে মারাত্মক বেকায়দায় পড়েছে গাড়ি চালকরা। দুর্ঘটনারোধে ফগ লাইট ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে হাইওয়ে পুলিশ।
ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা রয়েল পরিবহনের চালক মামুন সরকার জানান, রবিবার রাত ১টায় যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে রওনা হই। সোমবার ভোর সাড়ে ৪ টার মধ্যে চট্টগ্রামের পৌঁছার কথা। কুয়াশার কারণে সকাল ৬ টা বাজে এখনও চান্দিনায় আছি। আরো ২ ঘণ্টায়ও ঢাকায় পৌঁছাতে পারব না।
সোমবার সকাল ৯ টায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় প্রচন্ড শীত ও কুয়াশায় মহাসড়ক ধোঁয়ার মতো দেখা যায়। যানবাহন চালকরা হেড লাইট জ্বালিয়ে একেবারে আস্তে আস্তে চালিয়ে যাচ্ছে। প্রায় সাড়ে ৯টা পর্যন্ত কুয়াশার কারণে মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনার নিমসার যানবাহন ও ট্রাকের চলাচল সীমতি সংখ্যক।
কুমিল্লা আবহাওয়ার অফিসার ইসমাইল ভূঁইয়া জানান, জেলায় সোমবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৮.৭ দশমকি ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ১৩.২৭ দশমকি ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগামী তিনদিনও শীত ও কুয়াশার আধিক্য থাকতে পারে ।
ট্রাকচালক পরেশ চন্দ্র সরকার জানান, এমন কুয়াশা কয়েক বছরেও দেখিনি। রাতে হেড লাইট জ্বালিয়ে ০৫-১০ হাত সামনে কিছু দেখা যায় না। যে কারণে ঘণ্টায় ৩০-৩৫ কিলোমিটার গতির বেশি চালানো যায় না। মহাসড়কের অনেক ফাঁকা জায়গায় কুয়াশা বেশি থাকলে গাড়ি থামিয়ে রাখি। আবার পেছন থেকে অন্য গাড়ি ধাক্কা দেয় কি না সে ভয়ে থাকি।
এ ব্যাপারে হাইওয়ে পুলিশ কুমিল্লা অঞ্চলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ রহমত উল্লাহ জানান, ঘন কুয়াশায় যেকোনো যানবাহন চলাচল বিপদজনক। আমরা মহাসড়কে চলাচলরত সকল যানবাহনে ফগ লাইট ব্যবহারে চালকদের উৎসাহ করছি। চালকদের গতি নিয়ন্ত্রণে রেখে নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে যানবাহন চলাচলের জন্য চালকদের সচেতনতা সৃষ্টি করছি। তীব্র শীত ও কুয়াশায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে অতিরিক্ত গতিতে যানবাহন না চালানোর পরামর্শ দেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন

  • বৃহত্তর কুমিল্লা এর আরও খবর